অন্ধ নাতিকে নিয়ে ভিক্ষা করে জীবিকা নির্বাহ করেন তারাকান্দার বিধবা আছিয়া ।।

সেলিনা কবীর :প্রায় 40 বছর আগে স্বামী মারা গেছেন সংসারে উপার্জন ক্ষম কেউ না থাকায় মানুষের বাড়িতে কাজ করে দিনাতিপাত করত আছিয়া। সময় পাড় হতে থাকে এভাবে। ইতিমধ্যে সময়ের সাথে বাড়ে তার বয়স ভাটা নেমে আসে নিজের কর্মক্ষেত্রে কেউ কাজে নিতে চায়না। কি আর করা অন্ধ নাতনি রত্না(30) কে সাথে নিয়ে জীবিকা নির্বাহে বেছে নেন ভিক্ষা বৃতিকে কিন্তু ভিক্ষা করে জীবিকা নির্বাহ করায় বিভিন্ন জনের কটু কথা নিজের বিবেক কে নাড়া দিত আছিয়ার নিরুপায় হয়ে চেয়ারম্যানের কাছে বিধবা, বয়স্ক, কিংবা একটা প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ডের জন্য দিনের পর দিন ধর্না দিয়ে ও তাদের ভাগ্যে জোটেনী সরকারী কোন সুবিধা। বলছিলাম তারাকান্দা উপজেলার 10 নং বিসকা ইউনিয়ন এর লালমা গ্রামের মৃত ইদ্রিস আলীর স্রী আছিয়াখাতুন (75) এর কথা । যিনি জীবন সায়াহ্ন এসে আক্ষেপ করে বলেন ভিক্ষা করতে ভালো লাগে না সমাজের মানুষ আমাদের ঘৃনার চোখ দেখে একটা কার্ড পেলে এই পেশা ছেড়ে দিতাম কিন্তু কার্ডের জন্য ঘুরে ব্যর্থ হয়ে আজ মানবেতর জীবন যাপন করছি।

Scroll Up