শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৪৫ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ
দুই বছরের উন্নয়ন কর্মকান্ড নিয়ে চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফারুকুল ইসলাম রতন এর মত বিনিময় সভা এ এসপি পরিচয়ে বিয়ের প্রস্তাব দিতে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা প্রতারক সোলাইমান গাঙ্গিনাপাড় এলাকায় ফুটপাত দখলমুক্ত করতে অভিযান কলমাকান্দায় সাংসদ মানু মজুমদারের অনুদানের চেক বিতরণ ময়মনসিংহ সিটিতে একাধিক উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করলেন মসিক মেয়‌র -টিটু  কলমাকান্দায় ১২ লক্ষাধিক ব্যান্ডের শাড়ী জব্দ ময়মনসিংহে ফাইজার টিকাদান কার্যক্রম উদ্বোধন করেন মসিক মেয়র টিটু ময়মনসিংহের পরানগঞ্জে এলজিইডির রাস্তা নির্মাণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ সিটি কর্পোরেশনের সেবাকে দ্রুত, সহজলভ্য ও নিবেদিত করতে আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ-মেয়র ইকরামুল হক টিটু

“আমি নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী এবং এলাকার উন্নয়নে বিশ্বাসী” চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ আব্দুস ছালাম মন্ডল ।

ডেস্ক রিপোর্ট।। ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার বিসকা ইউনিয়ন পরিষদের ২০২১ সালের নির্বাচনে ২য় বার চেয়ারম্যান পদে নৌকার মাঝি হতে চান উপজেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ও বর্তমান সফল চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুস ছালাম মন্ডল।

তিনি শুরু থেকেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত থেকে বিসকা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রথমে সাধারণ সম্পাদক ও পরে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। এরপর তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক, বর্তমানে উপজেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক পদে রয়েছেন। ২০০৭ সালে ১/১১ সময় আওয়ামী লীগ মহা সচিব সৈয়দ আশরাফ উপজেলার দ্বিতীয় প্রাণ কেন্দ্র কাশিগঞ্জ বাজারে তার ঘরে এক কর্মী সমাবেশের মধ্য দিয়ে তিনি নিজের অবস্থান জানান দেন। ২ বারের নির্বাচিত সফল চেয়ারম্যান আব্দুস ছালাম মন্ডল ২০১৬ সালে নৌকা প্রতীক নিয়ে বিএনপি সহ তার প্রতিদ্বন্দীদের বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

তিনি, তাঁর পরিশ্রম, সাহস, ইচ্ছাশক্তি, একাগ্রতা আর কর্মদক্ষতার সমন্বয়ে সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য, শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশের যে স্বপ্ন রয়েছে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন এবং আসন্ন নির্বাচনে আবারো নৌকা প্রতীকের জয়লাভের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই উন্নয়নে অগ্রণী ভূমিকা রেখে সাধারণ মানুষের আস্থা অর্জনে সক্ষম হয়েছেন। এলাকার হতদরিদ্র মানুষের উন্নয়নে তাঁর নিরন্তর প্রয়াস সব মহলেই প্রশংসা কুঁড়িয়েছে। রাস্তা ঘাটের উন্নয়ন, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সেবায় বিশেষ অবদান, সামাজিক উন্নয়নসহ বিভিন্ন প্রকল্পের বাস্তবায়নে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিয়ে এলাকায় নিজের মুখ উজ্জ্বল করেছেন।

তার সাথে দলের ভাবমূর্তির উন্নয়ন হয়েছে। ব্যক্তি জীবনে তিনি অত্যন্ত সৎ ও সময়নিষ্ঠ সদা হাস্যোজ্জ্বল ও সাদা মনের মানুষ। তাঁর মাঝে কোনো অহংকার নেই। নিরহংকারী এই মানুষটি দলমত নির্বিশেষে আজ সকলের কাছে প্রিয়। কাজ করছেন নৌকার জন্য। সর্বোপরি কাজ করছেন সাধারণ মানুষের কল্যাণের জন্য।

এই সফল মানুষটি দলীয় নেতাকর্মী থেকে শুরু করে প্রতিটি মানুষের বিপদ আপদে ছুটে যান। এলাকায় তিনি একজন সাদা মনের উদার মানসিকতার মানুষ হিসেবে ইতিমধ্যে পরিচিতি লাভ করেছেন। সকল দু:খ দুর্দশায় তাঁকে সহজেই পাশে পাওয়া যায়।

ইতোমধ্যে তিনি সমাজের সকল মতাদর্শের মানুষের কাছে একজন দক্ষ, পরিশ্রমী চেয়ারম্যান হিসাবে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেছেন। নির্বাচনকালীন সময়ে সাধারণ জনগনকে দেয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করে একজন সফল ও জনপ্রিয় চেয়ারম্যান হিসেবে সবশ্রেনীর মানুষের অন্তরে স্থান করে নিয়েছেন।

ছোটবেলা থেকেই আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় থেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বাস্তবায়নে জনগণের মুখে হাসি ফুটাতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। মানুষের কল্যাণে যিনি নিজেকে সর্বদাই নিয়োজিত রেখে ইতিমধ্যে একজন জনবান্ধব ও জনপ্রিয় রাজনীতিবিদ হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করে তুলতে সক্ষম হয়েছেন।

চেয়ারম্যান পদে দায়িত্বে থেকে বঙ্গবন্ধু কন্যা বিশ্বসেরা প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতির জনকের স্বপ্নের সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলার অন্তর্গত একটি আধুনিক, উন্নত দৃশ্যমান ইউনিয়ন হিসাবে গড়তে রাত-দিন এলাকার একপ্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে দৌড়াচ্ছেন। গত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে সর্বোচ্চ ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। ত্যাগী এই আওয়ামী লীগ নেতা তার কর্মের মাধ্যমে ইউনিয়ন বাসীর প্রিয়মুখ হিসাবেই পরিচিত অর্জন করে নিয়েছেন।

মেধা,কর্ম প্রয়াস শ্রম এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনাগত দক্ষতা অর্জনের মধ্য দিয়ে তিনি নিজেকে গড়েছেন পরিশীলিতভাবে এক উজ্জ্বল অধ্যায়ে। এলাকার গরীব দুঃখী মানুষের পাশে থেকে তিনি সব সময় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। সর্বোপরি গরীব মেহনতী মানুষের প্রকৃত জনদরদী হিসেবে তিনি এলাকায় ব্যাপক পরিচিত ও জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন।

চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে তিনি এ পর্যন্ত ইউনিয়নের বিভিন্ন রাস্তার উন্নয়ন, স্কুল, মাদ্রাসা, মসজিদ, সংস্কার করে গরীব দু:খী মানুষের মাঝে বয়স্কভাতা, বিধবাভাতা সঠিকভাবে বিতরণ করেছেন এবং বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করে গ্রাম্য শালিসের মাধ্যমে ইউনিয়নের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করে যাচ্ছেন।

তিনি তার দায়িত্ব পালন কালীন সময়ে কর্মগু‌ণে প্রশংসার জোয়া‌রে ভাসছেন । নির্বাচ‌নের পর থে‌কে এল জিডির অর্থায়নে এখন পর্যন্ত বিসকা এবং নগুয়ায় প্রায় ৬কিঃ মিঃ পাকা রাস্তা ৩,০০০ তিন হাজার ফুট রাস্তা ই‌টের স‌লিং আ‌ঙ্গি‌কে নির্মাণ করা করেছেন । নি‌র্মিত হ‌য়ে‌ছে ১ টি নতুন ব্রীজ আরেকটি ব্রীজ এর সংস্কার কাজ।নির্মাণ করেছেন ১০০ টি কালভার্ট ।

খিঁচা আমিরাবাগ উচ্চ বিদ্যালয়ের সিমানা প্রাচীর এবং বাত্তিকুড়া এলাকায় কমর উদ্দিন রুমী শাহ হাফেজিয়া মাদ্রাসার সীমানা প্রাচীর নির্মান করা হ‌য়ে‌ছে । প্রায় কয়েক কিঃ মিঃ খাল খনন করা হ‌য়ে‌ছে । এলাকার সকল মস‌জিদ মাদরাসার উন্নয়নে প্রায় ১০ টন রড, হাজার বস্তা সিমেন্ট প্রতিটি মসজিদ মাদ্রাসায় দশ হাজার টাকা থেকে ২,০০০০০/ দুই লক্ষ টাকা পর্যন্ত নগদ অর্থ প্রদান করা হ‌য়ে‌ছে । সফল ভাবে আশ্রায়ন প্রকল্পের ৫টি গৃহহীন পরিবার এর মা‌ঝে ঘর হস্তান্তর করা হ‌য়ে‌ছে ।

স্যানিটেশন নিশ্চিতে স্বাস্থ্য সম্মত টয়‌লেট , বিশুদ্ধ পানির জন্য টিউব‌ওয়েল পি‌ছি‌য়ে পরা জনগোষ্ঠীর মা‌ঝে বিতরণ করা হ‌য়ে‌ছে ।

‌এখন পর্যন্ত যত্ন প্রকল্পের ১,৪০০ এক হাজার চারশো কার্ড দেয়া হ‌য়ে‌ছে গর্ভবতী মায়েদের নিরাপত্তায় । ইউ‌নিয়‌নে ভিজি‌ডি কার্ড দেয়া হ‌য়ে‌ছে ২০৭ জন কে । অতি দরিদ্রদের কর্মসৃজন কর্মসূচীর সুবিধাভোগীর আওতায় রয়েছে ৫৯০ জন সুবিধাভোগী। বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী ভাতার আওতায় রয়েছে ২৫০০ দুই হাজার পাঁচশ সুবিধাভোগী।দক্ষতার সহিত স্বচ্ছতা বজায় রেখে ইউনিয়নের উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনা করায় ইউনিয়ন বাসি সফল চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুস সালাম এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এলাকাবাসী । চেয়ারম্যান ও এই উন্নয়ন এর ধারা অব্যাহত রাখতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন ।

সরেজমিনে জানা যায়, গত নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থীরাও প্রচার প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন। ওই ইউনিয়নের নানা শ্রেণী পেশার ব্যক্তিবর্গের সাথে কথা হলে তারা জানান, চেয়ারম্যান আব্দুস ছালাম মন্ডলকে ভাবা হচ্ছে আওয়ামী লীগের বিকল্পহীন প্রার্থী হিসেবে। গুণীজনদের অভিমত জনসমর্থনের দিক দিয়ে চেয়ারম্যান আব্দুস ছালাম মন্ডল রয়েছেন শক্ত অবস্থানে। তারা বলেছেন, নৌকা প্রতীক পেলে বিপুল ভোটে ৩য় বারের মতো জয় পাবেন বলে তারা অভিমত ব্যক্ত করেছেন।

দয়া করে শেয়ার করুন...


এ ধরনের সংবাদ পড়তে.............