তারাকান্দা উপজেলার গালাগাঁও ইউনিয়ন দৃশ্যমান উন্নয়নে আলোকিত একটি নাম

সেলিনা কবীর।। দৃশ্যমান উন্নয়নে আলোকিত একটি নাম তারাকান্দা উপজেলার গালাগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জিয়াউল হক জিয়া । গালাগাঁও ইউনিয়নকে একটি মডেল ইউনিয়নে রুপান্তর করতে বিভিন্ন প্রকল্প হাতে নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। ইতিমধ্যে উনার কর্ম দক্ষতার ফলে ইউনিয়নে উন্নয়ন কার্যক্রম শক্তিশালী করা হয়েছে।
চেয়ারম্যান জিয়াউল হক জিয়ার দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, উক্ত ইউনিয়কে দ্রত সময়ের মধ্যে মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তোলা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।
তিনি বলেন, এ ইউনিয়কে একটা মডেল ইউনিয়নে রূপান্তর করার লক্ষ্যে নির্বাচিত হওয়ার পর হতে শিক্ষা এবং যোগাযোগ ব্যবস্থাকে প্রাধান্য দিয়ে সমন্বিত উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে এবং সে মাফিক কাজ চালিয়ে যাচ্ছি।
বর্তমান সরকারের ডিজিটাল উন্নয়নের ছোঁয়া এ ইউনিয়নে প্রত্যন্ত গ্রামে পৌঁছে দিতে আমার পরিষদ নিরলসভাবে কাজ করছে। পরিষদের সদস্যদের সমন্বয়ে উন্নয়ন কাজ পরিচালনা করে এ ইউনিয়ন একটা মডেল ইউনিয়নে হিসেবে গড়ে তুলতে আমি আমার মেয়াদকালীন সময়ের মধ্য চেষ্টা অব্যহত রেখেছি । জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিটি গ্রামকে শহরে রূপান্তরিত করার বিষয়ে অঙ্গীকারাবদ্ধ। আমরা সে লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছি। ইতোমধ্যে এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে ইউনিয়নে প্রত্যন্ত গ্রামের রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ ও কালভার্ট নির্মাণসহ প্রতিটি স্থানে উন্নয়নের ছোঁয়া লাগাতে গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এর দিক নির্দেশনায় কাজ করে যাচ্ছি। ইতোমধ্যে এ ইউনিয়ন শতভাগ বিদ্যুতায়নের কাজ প্রায় সম্পন্ন করা হয়েছে।
এ ইউনিয়নে তৃণমূল পর্যায়ে উন্নয়নমূলক কাজ করার জন্য নৌকা প্রতীক না পেয়েও স্বতন্ত্র থেকে সর্বোচ্চ ভোটে নির্বাচিত হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগ রাজনীতির সুনাম ধরে রাখতে কাজ করে যাচ্ছি। উন্নয়ন কর্মকান্ডকে ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বারদের সমন্বয়ে ও তাদের মতামতের ভিত্তিতে এলাকাভিত্তিক উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনা করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত ‘গ্রাম হবে শহর’ ভিশন বাস্তবায়নে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।
ইউনিয়ন পরিষদের উন্নয়ন কর্মকান্ড নিয়ে ভবিষ্যৎ ভাবনা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, উপজেলা পরিষদের সাথে সমন্বয়ের মাধ্যমে আমি এলাকায় অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছি। এ ইউনিয়নে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের মধ্যে সড়ক পাকাকরণ, ইউনিয়নে আধাপাকা সড়ক ও অনেকগুলো ব্রিজের নির্মাণকাজ হচ্ছে।
দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে কী কী উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের মাধ্যমে বিধবা ভাতা, মাতৃত্ব ও প্রতিবন্ধী ভাতাসহ বিভিন্ন ভাতা প্রতিটি ওয়ার্ডে পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে কাজ করেছি। স্থানীয় সংসদ সদস্যে ও উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে আলোচনা করে প্রকৃত সুবিধাভোগীদের মাঝে ভাতা বিতরণে সর্বাত্বক চেষ্টা করেছি। এ ছাড়া বেকার যুবক ও দুস্থ নারীদের সেলাই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে স্বাবলম্বী করারও প্রয়াস চালিয়েছি।
মাদক ও যৌন হয়রানি রোধের বিষয়ে তিনি বলেন, পারিবারিক সচেতনতা ও সুশিক্ষা নিশ্চিত করলে আমাদের যুবসমাজ মাদকসহ বিভিন্ন অপকর্মের দিকে ঝুঁকবে না। এ ব্যাপারে অভিভাবকদের সচেতনতা বাড়াতে বিভিন্ন সভা-সেমিনার করেছি, যাতে করে তাদের সন্তানরা পড়াশোনার দিকে মনোযোগী হয়।
একজন সফল জনপ্রতিনিধি ও দক্ষ সংগঠক সাবেক সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তারাকান্দা উপজেলা ছাত্রলীগ ,সাবেক সাধারণ সম্পাদক বঙ্গবন্ধু ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগ ও সদ্য ঘোষিত তারাকান্দা উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জিয়া উল হক জিয়া গালাগাঁও গ্রামের এক সম্ভান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। একজন সফল জনপ্রতিনিধি ও দক্ষ সংগঠক জিয়া- রাজনীতির পাশাপাশি সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ধর্মীয় ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর ব্যাপক পৃষ্ঠপোষকতা রয়েছে। আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ তাকে মনোনীত করলে আবারো ব্যাপক ভোটে নির্বাচিত হবেন বলে আশা বাদ ব্যাক্ত করেন।

Scroll Up