ধর্ষককে ঝাপটে ধরল স্কুল ছাত্রী, হাতে কামড়ে পালাল ধর্ষক

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি
ময়মনসিংহের নান্দাইলে নানার বাড়িতে বেড়াতে পথে স্কুল ছাত্রীকে (১৪) তুলে নিয়ে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে আকাশ মিয়া নামে এক বখাটের বিরুদ্ধে।

অভিযুক্ত আকাশ মিয়া ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মাইজবাগ ইউনিয়নের কুমড়াশাসন গ্রামের বিল্লার হোসেনের ছেলে।

এ ঘটনায় সোমবার (৩০ নভেম্বর) রাতে ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ধর্ষক আকাশ মিয়াকে আসামী করে নান্দাইল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।

পরে আজ মঙ্গলবার (০১ ডিসেম্বর) ওই স্কুল ছাত্রীকে ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এর আগে ২৭ নভেম্বর দ্বিবাগত রাতে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মাইজবাগ ইউনিয়নের কুমড়াশাসন গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, গত শুক্রবার দুপুরে ওই স্কুল ছাত্রী উপজেলার মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়নের নিজ বাড়ি থেকে পাশের গ্রামে নানার বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার পথে ধর্ষক আকাশ মিয়া জোরপূর্বক ওই স্কুল ছাত্রীকে সিএনজিতে করে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মাইজবাগ ইউনিয়নের কুমড়াশাসন গ্রামে নিয়ে যায়।

সেখান থেকে আকাশ মিয়া তার আত্মীয় বাড়িতে নিয়ে রাতভর ধর্ষণ করে। পরে ধর্ষণ করে চলে যাওয়ার সময় ছাত্রী আকাশ মিয়াকে ঝাপটে ধরে চিৎকার দেয়। এ সময় ধর্ষক ছাত্রীর হাতে কামড়ালে ছেড়ে দিলে সে দৌড়ে পালিয়ে যায়।

পরে বিষয়টি জানাজানি হলে ছাত্রীর পরিবারকে গ্রাম্য সালিসে বিচারের আশ্বাস দেয়ায় থানায় যেতে পারেনি। স্থানীয়ভাবে বিচার না পেয়ে সোমবার রাতে মামলা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নান্দাইল থানার ওসি মোখলেছুর রহমান বলেন, মামলার পর থেকেই ধর্ষক আকাশ মিয়াকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে। ওই স্কুল ছাত্রীকে ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Scroll Up