বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:৩০ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ডুকে পড়ল রাইস মিলে, নারী শ্রমিকের মৃত্যু নর্দান ইউনিভার্সিটির উপাচার্য পদে অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন এর যোগদান IBBL ঢাকায় কালীগঞ্জ শাখার উদ্বোধন করেছে রাজধানী ঢাকার ডেমরায় অবস্থিত ডেমরা আইডিয়াল কলেজের এইচ এস সি পরীক্ষার্থী-২০২১ এর বিদায়ী সংবর্ধনা ও দোয়া সম্পন্ন । তারাকান্দায় দপ্তরীর এক যুগ ধরে বিনা বেতনে চাকরি পরিবারের সদস্যদের মানবেতর জীবন-যাপন কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট থানায় সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালন তারাকান্দায় চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ মতিউর রহমান মতি’র নির্বাচনী জন সভায় মানুষের ঢল ।। আওয়ামী লীগ এর ম‌নোনয়ন পত্র জমা দি‌লেন মোঃআব্দুছ সালাম মন্ডল ।। ময়মনসিংহে সাবেক স্ত্রীকে ছুরিকাঘাত; স্বামী গ্রেফতার ।। নেত্রকোণার তিন উপজেলায় ২৫ টি বেসরকারীভাবে ফলাফল, নৌকা-১৭ টি, স্বতন্ত্র – ৭ টি, স্থগিত – ১টি ।

বর্তমান সফল চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম কে আবারো নৌকার কাণ্ডারী হিসাবে দেখতে চায় তৃণমূল নেতাকর্মীরা

স্টাফ রিপোর্টার।। ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার ৯ নং কামারগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের ২০২১ সালের নির্বাচনে ২য় বার চেয়ারম্যান পদে নৌকার মাঝি হতে চান উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও বর্তমান সফল চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম ।

তিনি শুরু থেকেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত ২০১৬ সালে নৌকা প্রতীক নিয়ে বিএনপি সহ তার প্রতিদ্বন্দীদের বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

ছোটবেলা থেকেই আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় থেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বাস্তবায়নে জনগণের মুখে হাসি ফুটাতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। মানুষের কল্যাণে যিনি নিজেকে সর্বদাই নিয়োজিত রেখে ইতিমধ্যে একজন জনবান্ধব ও জনপ্রিয় রাজনীতিবিদ হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করে তুলতে সক্ষম হয়েছেন।

চেয়ারম্যান পদে দায়িত্বে থেকে বঙ্গবন্ধু কন্যা বিশ্বসেরা প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতির জনকের স্বপ্নের সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলার অন্তর্গত একটি আধুনিক, উন্নত দৃশ্যমান ইউনিয়ন হিসাবে গড়তে রাত-দিন এলাকার একপ্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে দৌড়াচ্ছেন। গত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে সর্বোচ্চ ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। ত্যাগী এই আওয়ামী লীগ নেতা তার কর্মের মাধ্যমে ইউনিয়ন বাসীর প্রিয়মুখ হিসাবেই পরিচিত অর্জন করে নিয়েছেন।
ইউনিয়নের নানা শ্রেণী পেশার ব্যক্তিবর্গের সাথে কথা হলে তারা জানান, চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম কে ভাবা হচ্ছে আওয়ামী লীগের বিকল্পহীন প্রার্থী হিসেবে। গুণীজনদের অভিমত জনসমর্থনের দিক দিয়ে চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রয়েছেন শক্ত অবস্থানে। তারা বলেছেন, নৌকা প্রতীক পেলে বিপুল ভোটে ৩য় বারের মতো জয় পাবেন বলে তারা অভিমত ব্যক্ত করেছেন।

তিনি, তাঁর পরিশ্রম, সাহস, ইচ্ছাশক্তি, একাগ্রতা আর কর্মদক্ষতার সমন্বয়ে সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য, শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশের যে স্বপ্ন রয়েছে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন এবং আসন্ন নির্বাচনে আবারো নৌকা প্রতীকের জয়লাভের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই উন্নয়নে অগ্রণী ভূমিকা রেখে সাধারণ মানুষের আস্থা অর্জনে সক্ষম হয়েছেন। এলাকার হতদরিদ্র মানুষের উন্নয়নে তাঁর নিরন্তর প্রয়াস সব মহলেই প্রশংসা কুঁড়িয়েছে। রাস্তা ঘাটের উন্নয়ন, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সেবায় বিশেষ অবদান, সামাজিক উন্নয়নসহ বিভিন্ন প্রকল্পের বাস্তবায়নে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিয়ে এলাকায় নিজের মুখ উজ্জ্বল করেছেন।

তার সাথে দলের ভাবমূর্তির উন্নয়ন হয়েছে। ব্যক্তি জীবনে তিনি অত্যন্ত সৎ ও সময়নিষ্ঠ সদা হাস্যোজ্জ্বল ও সাদা মনের মানুষ। তাঁর মাঝে কোনো অহংকার নেই। নিরহংকারী এই মানুষটি দলমত নির্বিশেষে আজ সকলের কাছে প্রিয়। কাজ করছেন নৌকার জন্য। সর্বোপরি কাজ করছেন সাধারণ মানুষের কল্যাণের জন্য।

এই সফল মানুষটি দলীয় নেতাকর্মী থেকে শুরু করে প্রতিটি মানুষের বিপদ আপদে ছুটে যান। এলাকায় তিনি একজন সাদা মনের উদার মানসিকতার মানুষ হিসেবে ইতিমধ্যে পরিচিতি লাভ করেছেন। সকল দু:খ দুর্দশায় তাঁকে সহজেই পাশে পাওয়া যায়।

ইতোমধ্যে তিনি সমাজের সকল মতাদর্শের মানুষের কাছে একজন দক্ষ, পরিশ্রমী চেয়ারম্যান হিসাবে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেছেন। নির্বাচনকালীন সময়ে সাধারণ জনগনকে দেয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করে একজন সফল ও জনপ্রিয় চেয়ারম্যান হিসেবে সবশ্রেনীর মানুষের অন্তরে স্থান করে নিয়েছেন।

ছোটবেলা থেকেই আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় থেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বাস্তবায়নে জনগণের মুখে হাসি ফুটাতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। মানুষের কল্যাণে যিনি নিজেকে সর্বদাই নিয়োজিত রেখে ইতিমধ্যে একজন জনবান্ধব ও জনপ্রিয় রাজনীতিবিদ হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করে তুলতে সক্ষম হয়েছেন।

চেয়ারম্যান পদে দায়িত্বে থেকে বঙ্গবন্ধু কন্যা বিশ্বসেরা প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতির জনকের স্বপ্নের সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলার অন্তর্গত একটি আধুনিক, উন্নত দৃশ্যমান ইউনিয়ন হিসাবে গড়তে রাত-দিন এলাকার একপ্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে দৌড়াচ্ছেন। গত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে সর্বোচ্চ ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। ত্যাগী এই আওয়ামী লীগ নেতা তার কর্মের মাধ্যমে ইউনিয়ন বাসীর প্রিয়মুখ হিসাবেই পরিচিত অর্জন করে নিয়েছেন।

মেধা,কর্ম প্রয়াস শ্রম এর মাধ্যমে ব্যবস্থাপনাগত দক্ষতা অর্জনের মধ্য দিয়ে তিনি নিজেকে গড়েছেন পরিশীলিতভাবে এক উজ্জ্বল অধ্যায়ে। এলাকার গরীব দুঃখী মানুষের পাশে থেকে তিনি সব সময় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। সর্বোপরি গরীব মেহনতী মানুষের প্রকৃত জনদরদী হিসেবে তিনি এলাকায় ব্যাপক পরিচিত ও জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন।

চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে তিনি এ পর্যন্ত ইউনিয়নের বিভিন্ন রাস্তার উন্নয়ন, স্কুল, মাদ্রাসা, মসজিদ, সংস্কার করে গরীব দু:খী মানুষের মাঝে বয়স্কভাতা, বিধবাভাতা সঠিকভাবে বিতরণ করেছেন এবং বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করে গ্রাম্য শালিসের মাধ্যমে ইউনিয়নের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করে যাচ্ছেন।

তিনি তার দায়িত্ব পালন কালীন সময়ে কর্মগু‌ণে প্রশংসার জোয়া‌রে ভাসছেন । সরেজমিনে জানা যায়, গত নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থীরাও প্রচার প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন। ওই ইউনিয়নের নানা শ্রেণী পেশার ব্যক্তিবর্গের সাথে কথা হলে তারা জানান, চেয়ারম্যান রফিকুল কে ভাবা হচ্ছে আওয়ামী লীগের বিকল্পহীন প্রার্থী হিসেবে। গুণীজনদের অভিমত জনসমর্থনের দিক দিয়ে চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম রয়েছেন শক্ত অবস্থানে। তারা বলেছেন, নৌকা প্রতীক পেলে বিপুল ভোটে ৩য় বারের মতো জয় পাবেন বলে তারা অভিমত ব্যক্ত করেছেন।

 

দয়া করে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এ ধরনের সংবাদ পড়তে.............