মুক্তিপন না দেয়ায় শিশু সানজিদাকে শ্বাস রোধ করে হত্যা করা হয়

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি
ময়মনসিংহের তারাকান্দায় অপহরনের তিন দিন পর বাকপ্রতিবন্ধী সানজিদা আক্তারকে (৭) নামে এক শিশুকে হত্যায় দুই জনকে গ্রেফতার করেছে র্যাব-১৪।
শনিবার (১৬ জানুয়ারী) দ্বিবাগত মধ্যরাতে উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের তাদের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে র্যাব।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ইয়াছিন আকন্দ (১৬) সে উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের মো. আবুল হাসিম আকন্দের ছেলে। নিশীত কুমার সিংহ (৫৭) সে তারাকান্দা বাজারে বিকাশ এজেন্ট বলে জানা গেছে।
নিহত সানজিদা আক্তার উপজেলার রামচন্দ্রপুর এলাকার শাহজাহান আকন্দের মেয়ে। সে স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ে ২য় শ্রেণীতে পড়ালেখা করত।
এর আগে শুক্রবার (১৫ জানুয়ারী) সকালে উপজেলার রামচন্দ্রপুর জঙ্গল থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
ওই দিন রাতেই অজ্ঞাতনামা আসামী করে তারাকান্দা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের বাবা শাহজাহান মিয়া।
রবিবার (১৭ জানুয়ারী) দুপুরে ময়মনসিংহ র্যাব ১৪ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মলনে লে. কর্নেল ইফতেখার উদ্দিন সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, গত ১২ জানুয়ারী শিশু সানজিদাকে অপহরণ করে ইয়াসিন আকন্দ। পরে ওইদিন রাতেই ৫০ হাজার টাকা চেয়ে চিরকুট রেখে যায় ইয়াসিন ও শাকিল। পরদিন (১৩ জানুয়ারী) থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন সানজিদার বাবা শাহজাহান। এ ঘটনার (১৫ জানুয়ারী) সকালে সানজিদার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ইয়াছিন জানায়, সুপারী কোড়ানোর নাম করে ইয়াছিন ও শাকিল সানজিদাকে বাড়ির পাশে জঙ্গলে নিয়ে যায়। জঙ্গলে নেয়ার পর কান্নাকাটি করলে ওই দিনই সানজিদাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে শাকিল ও ইয়াসিন।
হত্যার পরদিন বুধবার অপহরনকারীরা তারাকান্দা বাজারের বিকাশ এজেন্ট নিশীথ কুমার সিংহের দোকান থেকে বিকাশ নাম্বারে ২০ হাজার টাকা পাঠাতে বলে। এর পর থেকে তাদের সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয় তারা।
পরে শুক্রবার (১৫ জানুয়ারী) সকালে উপজেলার রামচন্দ্রপুর জঙ্গল থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
তিনি আরও বলেন, এ ঘটনার পর থেকে শাকিল পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে। গ্রেফতারকৃতদের সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর প্রক্রিয়া চলছে।
Scroll Up