ময়মনসিংহে অবৈধ মুড়ি কারখানা জরিমানা দেয়ার পরও টনক নড়েনী কারখানা মালিকের।

স্টাফ রিপোর্টার।। দীর্ঘদিন যাবৎ অনুমোদনহীন নোংরা অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে মুড়ি উৎপাদন ও অপরিচ্ছন্ন অবস্থায় গুদামজাত ,নেই উৎপাদন মেয়াদ ও খুচরা মূল্য এবং নেই অন্যান্য আইনের অনুমোদন। এমন চিত্র দেখা যায় ময়মনসিংহ সদরের চর নিলক্ষীয়া ইউনিয়নের মেসার্স ইসলাম মুড়ি কারখানায় ।তাছাড়া অন্যের নাম ব্যবহার করে বেআইনি ভাবে মুড়ি উৎপাদনের অভিযোগ ও রয়েছে ইসলাম মুড়ি কারখানার বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে মুড়ি কারখানার মালিক ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি এর কোন সদুত্তর দিতে পারেনি। ব্যার্থ হয় সরকারী কোন অনুমোদনের কাগজ পত্র দেখাতেও। কারখানার ভিতরের পরিবেশ নোংরা অস্বাস্থ্যকর, অপরিচ্ছন্ন, ধুলোবালিময়, উৎপাদনের সাথে জড়িত শ্রমিকদর নেই কোন স্বাস্থ্যগত সনদ। মজুদ ঘরে বিভিন্ন পোকা মাকড়ের বাসা নেই পর্যাপ্ত পরিমাণে আলো বাতাস। এভাবেই খোলামেলা মুড়ির বস্তা পড়ে আছে ছড়িয়ে ছিটিয়ে। মুড়ি কারখানা মালিকের এ হেন অপরাধে গত কিছুদিন পূর্বে অভিযান চালিয়ে ২,০০০০০(দুই লক্ষ) টাকা জরিমানা আদায় সহ পরবর্তী তে মুড়ি কারখানা চালানোর সকল কাগজ পত্র সংগ্রহ পূর্বক কারখানা অনুমোদন নেয়ার নির্দেশ দিলে ও প্রশাসনের নির্দেশ অমান্য করে আবারো পুরোদমে উৎপাদন কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন মালিক ইসলাম মিয়া। সরকারী রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে এ ধরনের ব্যাবসা পরিচালনা করায় একদিকে সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব অন্যদিকে লাইসেন্স ধারী বৈধ ব্যবসায়ীরা পড়েছে বিপাকে। বৈধ ব্যবসায়ী দের দাবী এসব ভেজাল মুড়ি কারখানায় নিয়মিত অভিযান চালানো হলে এসব অবৈধ কারখানা মালিকদের টনক নড়বে।

Scroll Up