ময়মনসিংহে ফাঁসিতে ঝুলে নববধুর আত্মহত্যা

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

ময়মনসিংহের শম্ভুগঞ্জ এলাকা থেকে মাহমুদা আক্তার নামে এক নববধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামী সজলকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত মাহমুদা সদর উপজেলার রাঘবপুর গ্রামের বিল্লাল মুন্সির মেয়ে। আটক কৃত সজল রঘুরামপুর এলাকার শাহজাহান মিয়ার ছেলে।

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৪ টার দিকে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন ৩৩ নং ওয়ার্ডের শম্ভুগঞ্জ রঘুরামপুর এলাকা থেকে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

স্থানীয় সুত্র জানায়, প্রায় তিন মাস আগে পারিবারিক ভাবে মাহমুদার বিয়ে হয় সজলের সাথে। স্বামী স্ত্রীর মাঝে কোন পারিবারিক দন্ধ বা কলহ ছিল না। কিন্ত আজ দুপুরের খাবারের পর সবাই যার যার ঘরে টিভি দেখছিলেন। মাহমুদা আক্তার নিজে তার ঘরের দরজা আটকে টিভি দেখছিলেন। বাড়ির সবাই ঘর থেকে বের হলেও মাহমুদা ঘর থেকে বের হয়নি। তখন মাহমুদাকে ডাকাকাকি করে তার কোন সাড়া না পেয়ে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকলে সিলিংয়ের সাথে রশি দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায় পরিবারের লোকজন। এমন অবস্থায় পরিবারের লোকজনের চিৎকার চেচামেচিতে স্থানীয়রা ছুটে আসেন। পরিবারের লোকজন নিজেরাই লাশ নামিয়ে পুলিশে খবর দেয়। পরে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে পাঠায় পুলিশ।

এ বিষয়ে কোতোয়ালী থানার এসআই কামাল হোসেন জানান, আমরা ঘটনাস্থল নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে পাঠিয়েছি। তবে, আমরা ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ উদ্ধার করিনি। এ ঘটনায় স্বামী সজল মিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

Scroll Up