ময়মনসিংহের চর নিলক্ষীয়ায় স্ত্রী’কে অমানুষিক নির্যাতনের অভিযোগে গ্রাম আদালতে মামলা

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি।। ময়মনসিংহের সদর উপজেলার ৭নং চর নিলক্ষীয়া ইউনিয়নের রাঘবপুর (বড়ইকান্দি) গ্রামে মৃতঃ হাজী খুমর আলী মুন্সি’র ছেলে মোঃ আব্দুল হকের বিরুদ্ধে স্ত্রী’কে অমানুষিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে।

এ ব্যাপারে নির্যাতিতা স্ত্রী বাদী হয়ে ৭নং চর নিলক্ষীয়া ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালতে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ আমলে নিয়ে বিবাদী মোঃ আব্দুল হক কে (৩০ মার্চ) পরিষদে হাজির হওয়ার জন্য নোটিশ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইউনিয়ন পরিষদ সচিব সম্পা দেবনাথ। তবে আব্দুল হক নোটিশ অনুযায়ী পরিষদে হাজির হননি।

গ্রাম আদালতে অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বিবাদী মোঃ আব্দুল হক (৬২) তার প্রথম স্ত্রী’কে তালাক দেয়। এরপর বিগত (২৫ অক্টোবর ২০২০ই) তারিখে দ্বিতীয় বিবাহ করেন। দ্বিতীয় স্ত্রী’কে নিয়ে দীর্ঘ প্রায় দুই বৎসর সংসার করার পর তার স্ত্রীকে বাবার বাড়িতে পাঠায় তার শালির বিয়েতে।

পরে গত (১৬ মার্চ ২০২২ইং) স্ত্রীর অনুমতি না নিয়ে তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী’কে বাড়ীতে নিয়ে আসে। পরে খবর পেয়ে তার স্ত্রী ঐদিন বাবার বাড়ী থেকে স্বামী গৃহে আসলে বিবাদী মোঃ আব্দুল হকের ছোট মেয়ের জামাতা মোঃ সবুজ মিয়ার উস্কানিতে ও তার অংশগ্রহণে মোঃ আব্দুল হকসহ তার অপরাপর সঙ্গীয় গণকে নিয়ে মারধর, অমানুষিক নির্যাতন করে সারারাত ঘরে প্রবেশ করতে না দিয়ে স্বেচ্ছায় তালাক না দিলে প্রানে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে সকালে এক কাপড়ে বাড়ী থেকে বের করে দিয়েছে বলে অভিযোগে উল্লেখ রয়েছে ।

গতকাল বুধবার (৩০ মার্চ) গ্রাম আদালতের ধার্য্য তারিখ থাকায় ন্যায় বিচারের আশায় নির্যাতিত স্ত্রী’কে পরিষদে বসে থাকতে দেখা যায়। তবে বিবাদী মোঃ আব্দুল হকের উপস্থিতি দেখা যায়নি।

এব্যাপারে স্থানীয় ৫নং ওয়ার্ড মেম্বার মোঃ আমিনুল ইসলাম জানান, আব্দুল হকের স্ত্রী ঘটনার দিন সকালে আমার কাছে এসেছিলো। আমি এর সমাধান দিতে পারবনা বলে পরিষদে অভিযোগ দিতে বলেছি।

পার্শ্ববর্তী ১নং ওয়ার্ড মেম্বার মোঃ শফি আলম মন্ডল জানান, ঘটনার রাতে হকের স্ত্রী তার ওয়ার্ড মেম্বারকে মুঠোফোনে না পেয়ে আমাকে ফোন করে মারধর ও ঘরে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না বলে জানিয়েছিল, এসময় আমি হকের মুঠোফোনে যোগাযোগ করে অন্তত রাতে যেন ঘরে প্রবেশ করতে দেয় এমন অনুরোধ জানিয়ে বলেছিলাম সকালে বিষয়টি আমরা বসে সমাধানের চেষ্টা করব, তবে হক প্রতিত্তোরে বলেছেন আমার জেল ফাঁস যা হওয়ার হবে আমি তাকে ঘরে জায়গা দিবোনা।

এ বিষয়ে বিবাদী আব্দুল হকের মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন আমার এলাকায় একজন লোক মারাগেছে তাই আজ পরিষদে আসতে পারবনা। এতথ্যটি নিশ্চিত করেছেন প্যানেল চেয়ারম্যান রইছ উদ্দিন মন্ডল।

ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফারুকুল ইসলাম রতন জানান, আব্দুল হক আজ আসেনি, তাকে পূনরায় নোটিশ করা হবে। এসময় তিনি নির্যাতিতাকে ন্যায় বিচার পাইয়ে দেয়ার আস্বাস প্রদান করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.