গৌরীপুরে ২৬ বছরের স্বত্ব দখলীয় জমি বে দখলের পায়তারা

স্টাফ রিপোর্টার।। ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার ডৌহাখলা ইউনিয়ন এর চুড়ালী গ্রামের আব্দুর রহমান এর স্বত্ব দখলীয় জমি প্রতিপক্ষ ইসমাইল হোসেন কর্তৃক বেদখলের অভিযোগ উঠেছে।

জমির মালিক ভুক্তভোগী আব্দুর রহমান জানান, আমার চুড়ালী মৌজার এস, এ খতিয়ান নং – ২০৭ দাগ নং সাবেক – ১৬৬ হাল – ৮৫৭ শ্রেণি কান্দা এর ৫ শতাংশ জমি ক্রয়সূত্রে প্রাপ্ত হয়ে ২৬ বৎসর পুর্ব হতে ভোগ দখল করে আসছি। আমার অনুপস্থিতিতে আমার ভাগনে মোঃ ইসমাইল হোসেন (৩৭), পিতা-মৃতঃ আঃ জলিল, সাং-চূড়ালী, ইউনিয়ন-৮নং ডৌহাখলা, থানা-গৌরীপুর, জেলা-ময়মনসিংহ-আমার জায়গা দেখাশুনা করে আসছে। আমার তফসিল বর্ণিত জমি বিবাদী ১। আঃ মজিদ (৫৫), ২। মোঃ নজর আলী (২) মজিবর মিয়া (৪০), ৩। শামসুন্নাহার @ নূরুন্নাহার (৪৫), সর্ব পিতা-মৃত: জালাল উদ্দিন, গংরা জোর পূর্বক দখল করার চেষ্টা করলে আমি বাদী হয়ে উক্ত বিবাদীদের বিরুদ্ধে সদর বিজ্ঞ সিনিয়র জজ আদালত ময়মনসিংহে মোকদ্দমা নং-৪৯/২০২১ দায়ের করি। উক্ত মামলা বিজ্ঞ আদালতে চলমান থাকা সত্বেও উক্ত বিবাদীগণ পুনরায় আমার জায়গা জবর দখলের চেষ্টা করে আসছে। উল্লেখ্য বিবাদী আঃ মজিদ আমার জমি টিকিয়ে রাখতে আমার কাছে দুই লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে নতুবা আমাকে জমি থেকে উচ্ছেদের হুমকি প্রদান করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে গত ০৪ সেপ্টেম্বর বিকালে গৌরীপুর থানাধীন ডৌহাখলা ইউনিয়নস্ত চূড়ালী মৌজাস্থিত আমার নিম্ন তফসিল বর্ণিত জমিতে কাজ করিতে গেলে উপরোক্ত বিবাদীগণ আমার জমির পাশে এসে আমার ভাগনেকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। বিবাদীদেরকে গালিগালাজ করতে নিষেধ করলে বিবাদীরা আমার ভাগনে কে মারার জন্য উত্তোজিত হয়। তখন আমার ভাগনের ডাক চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে, বিবাদীরা যে কোন মূলে আমার নিম্ন তপছিল বর্ণিত জমি জোর পূর্বক দখল করে নিবে বলে হুমকি প্রদান করে এবং ০৮টি পেঁপে, ১০টি মেহগণি ও ১টি বেল গাছ কাটিয়া অনুমান ৮০,০০০/=(আশি হাজার) টাকার ক্ষতি সাধন করে। তখন আমার ভাগনে প্রাণভয়ে জমি থেকে চলে আসে। খবর পেয়ে গৌরীপুর থানার এস আই লিটন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। বর্তমানে উক্ত জমি সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে খুন জখম সহ শান্তি ভংগের আশংকা বিরাজ করছে ।
এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগী আব্দুর রহমান

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Share & Like
Share & Like